ssc 2018 109 শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করতে পারেনি

Posted on : May 7, 2018 | post in : BD News |Leave a reply |

ssc 2018 109 শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করতে পারেনি এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১০৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করতে পারেনি। যা গত বছর ছিল ৯৩টি।

ফাইল ছবি

ssc 2018

ssc 2018 ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলে এবার শতভাগ শিক্ষার্থী পাসের প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা গতবারের থেকেও ৬৯২টি কমেছে। সবাই ফেল করেছে- এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও বেড়েছে ১৬টি।

এবারের পরীক্ষায় পাসের হার নেমে এসেছে গত ৯ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম- ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশে। পাস করা শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন শিক্ষার্থী এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে।

সারাদেশে মোট ২৮ হাজার ৫৫৮টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে; গতবছর এই সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৩৫৯।

এ বছরের পরীক্ষায় সারাদেশে ১ হাজার ৫৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। গত বছর ২ হাজার ২৬৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছিল।

হিসাব অনুযায়ী এবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১৯৯টি বাড়লেও শতভাগ পাস করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা আরও কমেছে ৬৯২টি।

পাস করা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ঢাকা বোর্ডে ১৮৪টি, রাজশাহী বোর্ডে ২০৬টি, কুমিল্লা বোর্ডের ৭৪টি, দিনাজপুর বোর্ডে ৮৪টি, সিলেট বোর্ডে ২৩টি, যশোর বোর্ডে ৭৩টি, বরিশাল বোর্ডে ৫০টি ও চট্টগ্রাম বোর্ডে ২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থীই পাস করেছে।

এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১০৯টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করতে পারেনি। যা গত বছর ছিল ৯৩টি।

অপরদিকে শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা এক হাজার ৫৭৪টি। গত বছর ২ হাজার ২৬৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস করেছিল।

এ ছাড়া শতভাগ পাস বিদ্যালয়ের সংখ্যা যশোর বোর্ডে ৭৩, কুমিল্লা বোর্ডে ৭৪, চট্টগ্রাম বোর্ডে ২৭, বরিশাল বোর্ডে ৫০, সিলেট বোর্ডে ২৩ ও দিনাজপুর বোর্ডে ৮৪টি, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের ৭৫৭টি, কারিগরি বোর্ডে ৯৬টি।

রবিবার সকাল ১০টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে পরীক্ষার ফলাফল তুলে দিলে এসব তথ্য উঠে আসে।

পরে প্রধানমন্ত্রী সে ফলাফল অনলাইনে প্রকাশ করেন। এ সময় বিভিন্ন বোর্ডের চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ৪ মার্চ শেষ হয়।

বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ পৃথিবীর ৫৭তম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইটের মালিক হলো।

me on facebook

Tags:

Leave a Reply

 
Theme Designed Bybody{border:6px solid orange; margin:6px;}