গোপালগঞ্জ উপজেলায় ভোট গণনার আগে বিজয়ী ঘোষনাই করাই পুলিশ কে গুলি

Posted on : March 28, 2019 | post in : BD News |Leave a reply |
  • Published: 2019-03-26 17:28:28

bdnews24

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলায় ভোট গণনায় অনিয়মের অভিযোগে সড়ক অবরোধ করার সময় সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

সদর থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকে গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া ও গোপালগঞ্জ-টেকেরেহাট সড়কে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

রোববার গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ লুৎফার রহমান বাচ্চু ৩৭ হাজার ৬৫০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বলে ঘোষণা দেয় নির্বাচন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহামুদ হোসেন মোল্লা দিপু ও অপর প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম শাহআলম পুনরায় ভোট গণনার দাবিতে রাস্তায় নামে।

তারা সোমবার রাত ৮টা থেকে সড়ক অবরোধ শুরু করেন।

মাহামুদের সমর্থকরা গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া সড়কে বিভিন্ন এলাকায় রাস্তার পাশের গাছ কেটে সড়কে ফেলে অবরোধ করে। এছাড়া সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে ও গাছের গুড়ি ফেলে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। সড়কে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়ে। সাধারণ মানুষ দুর্ভোগে পড়ে।ওদিকে গোপালগঞ্জ-টেকেরহাট সড়কে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উলপুর থেকে বৌলতলী পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার সড়কে শাহআলমের সমর্থকরা অবরোধ করেন। তারা রাস্তার পাশের অসংখ্য বড় বড় গাছ কেটে রাস্তায় ফেলে রাখে। পাশাপাশি টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখায়।

ওসি মনিরুল বলেন, “পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ২১০ রাউন্ড গুলি, টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। এ সময় মো. দুলাল হাসান (৩০) নামে এক পুলিশ সদস্য পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভতি করা হয়েছে।”

তবে পুলিশ সদস্য কিভাবে গুলিবিদ্ধ হলেন, কে তাকে গুলি করল, সে বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেননি।

জেলার পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান বলেন, “পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে র‌্যাব, বিজিবি, এপিবিএন ও পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তারা কাজ করছেন।”

Leave a Reply

 
Theme Designed Bybody{border:6px solid orange; margin:6px;}